৩৬তম বিসিএসের পরীক্ষায় ঘড়ি নিষিদ্ধ

শিক্ষা ডেস্ক»ছত্রিশতম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা শুরু হচ্ছে ১ সেপ্টেম্বর (বৃহস্পতিবার)। পরীক্ষা কক্ষে মোবাইল ফোন, সব ধরণের ঘড়ি, ইলেকট্রনিক যোগাযোগযন্ত্র, বই-পুস্তক ও ব্যাগ নিষিদ্ধ করেছে সরকারি কর্মকমিশন (পিএসসি)।
মঙ্গলবার (৩০ আগস্ট) পিএসসির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ নিষেধাজ্ঞার কথা জানানো হয়।
এতে বলা হয়, বিজ্ঞাপনের শর্তানুযায়ী লিখিত পরীক্ষায় মোবাইল ফোন, ঘড়ি, সব ধরণের ইলেকট্রনিক যোগাযোগযন্ত্র, বই-পুস্তক ও ব্যাগসহ পরীক্ষা হলে প্রবেশ করা শাস্তিযোগ্য অপরাধ।
বিসিএস পরীক্ষার সময় হাত ঘড়ি, পকেট ঘড়ি, ইলেকট্রনিক ঘড়ি ব্যবহার কমিশন নিষিদ্ধ করেছে। পরীক্ষার হলে সময় জানার জন্য প্রত্যেক হলের পরীক্ষা কক্ষে প্রয়োজনীয় সংখ্যক দেয়াল ঘড়ি থাকবে বলেও জানিয়েছে কমিশন।
এতে আরও বলা হয়, পরীক্ষার হলে কোন পরীক্ষার্থীর কাছে এসব ডিভাইস পাওয়া গেলে তা বাজেয়াপ্ত, প্রার্থিতা বাতিলসহ ভবিষ্যতে পিএসসির সব নিয়োগ পরীক্ষায় অযোগ্য ঘোষণা করা হবে।
পিএসসি বলেছে, আগামী ৪ সেপ্টেম্বর গাণিতিক যুক্তি পরীক্ষার দিন সাধারণ ক্যালকুলেটর ব্যবহার করা যাবে। গণিত, ফলিত গণিত, পদার্থবিদ্যা, ফলিত পদার্থবিদ্যা, পরিসংখ্যান, হিসাব বিজ্ঞান, ফিন্যান্স, ব্যাংকিং, মার্কেটিং, পুরকৌশল, তড়িৎকৌশল, যন্ত্রকৌশল, ইলেকট্রনিক্স এবং অন্য ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ের পরীক্ষার দিন সাইন্টিফিক ক্যালকুলেটর (নন-প্রোগ্রামেবল) ব্যবহার করা যাবে।
ওই পরীক্ষা ছাড়া অন্য পরীক্ষার দিন কোনো প্রার্থীর কাছে ক্যালকুলেটর পাওয়া গেলে তার প্রার্থিতা বাতিল করে কমিশনের সব পরীক্ষার জন্য অযোগ্য ঘোষণা করা হবে।
আগামী ১ থেকে ৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৩৬তম বিসিএসের আবশ্যিক এবং ৫ থেকে ২৪ অক্টোবর পর্যন্ত পদ সংশ্লিষ্ট বিষয়ের পরীক্ষা হবে।
ঢাকা, রাজশাহী, চট্টগ্রাম, খুলনা, বরিশাল, সিলেট ও রংপুর কেন্দ্রে একযোগে লিখিত পরীক্ষা হবে। ২০০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষার সময় চার ঘণ্টা আর ১০০ নম্বরের পরীক্ষার সময় তিন ঘণ্টা।
পরীক্ষা শুরুর ১৫ মিনিট পর কোনো প্রার্থীকে পরীক্ষা কক্ষে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না বলে আগেই জানিয়েছে পিএসসি।
পিএসসির তথ্য অনুযায়ী, লিখিত পরীক্ষায় গড় নূন্যতম পাস নম্বর ৫০। কোনো বিষয়ে কেউ ৩০ শতাংশের কম পেলে তিনি ওই বিষয়ে কোনো নম্বর পাননি বলে গণ্য হবে।
গত ১০ ফেব্রুয়ারি ৩৬তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়। এতে ১৩ হাজার ৮৩০ জন লিখিত পরীক্ষার জন্য উত্তীর্ণ হয়েছেন। প্রিলিমিনারি পরীক্ষা গত ৮ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হয়। এতে দুই লাখ ১১ হাজার ৩২৬ জন অংশ নেন।
গত বছরের ৩১ মে ৩৬তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে পিএসসি। এর মাধ্যমে বিভিন্ন ক্যাডারে দুই হাজার ১৮০ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে।

প্রকাশক সম্পাদক : জাহাঙ্গীর কবির লিটন
এলাহী মার্কেট , ২য় তলা, বড় মসজিদ গলি, ট্রাংক রোড,ফেনী।
jagofeni24@gmail.com
© 2016 allrights reserved to JagoFeni24.Com | Desing & Development BY PopularITLtd.Com, Server Manneged BY PopularServer.Com